বোলপুরের হিন্দু তরুণীকে ধর্ষণ করে রাজমিস্ত্রি শেখ হাফিজুল,

Marxist Sheikh Hafizul raped the Hindu girl of Bolpur,
রাজমিস্ত্রি শেখ হাফিজুল
Marxist Sheikh Hafizul raped the Hindu girl of Bolpur,
রাজমিস্ত্রি শেখ হাফিজুল

আজবাংলা বোলপুরের রজতপুরের বাসিন্দা নির্যাতিতা তরুণীরদের বাড়ি তৈরির কাজ চলছিল। অভিযোগ, সেইসময় লুকিয়ে তরুণীর স্নানের ছবি তোলে শেখ হাফিজুল নামে এক রাজমিস্ত্রি । ওই ছবি ইন্টারনেটে ফাঁস করে দেওয়ার হুমকি দিয়ে ওই তরুণীকে বার বার ধর্ষণ করে সে। অপমানে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তরুণী।  বোলপুরের নির্যাতিতা তরুণীকে মেডিক্যাল কলেজে দেখতে গিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়লেন বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়। তাঁর অভিযোগ, ৯০ শতাংশ দগ্ধ ওই তরুণীর চিকিত্সার কোনও ব্যবস্থাই করেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। প্রথমে বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠানো হয় তাঁকে। পরে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়। বর্তমানে ওই তরুণী কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে চিকিত্সাধীন। শনিবার তরুণীর চিকিত্সার খোঁজ নিতে গিয়েছিলেন রাজ্য বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়। রজতপুরের বাসিন্দা ওই তরুণীর বাবা ভ্যানচালক। রাইপুর-সুপুর পঞ্চায়েত থেকে বাড়ি তৈরির জন্য অনুদান পেয়েছিলেন তিনি। বাড়ি তৈরির কাজ করছিল রাজমিস্ত্রি শেখ হাফিজুল। অভিযোগ, স্নানঘরে ওই তরুণীর অশ্লীল ছবি লুকিয়ে তুলেছিল হাফিজুল। সেটি সবাইকে দেখিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে তাঁকে ধর্ষণ করে। বুধবার ওই তরুণীর বাড়িতে যায় বিশ্ব হিন্দু পরিষদের একটি প্রতিনিধিদল। সন্ধেয় তরুণীর বাড়িতে যান জেলা বিজেপির সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, ‘‘ওই তরুণীর দেহের ৯০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছে। তদন্তের স্বার্থে দ্রুত ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে তাঁর জবানবন্দি রেকর্ড করার ব্যবস্থা করা দরকার।’’  তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের মুখে কোন কথা নেই । সুশীল সমাজের মুখে কোন কথা নেই । নেই কোনো মোমবাতি হাতে কলকাতার রাজ পথে ঘোরা বুদ্ধিজীবী। তরুণীর বাবা ভ্যানচালকের নেই চিকিত্সা করবার মতো টাকা । তাই হয়তো  বুদ্ধিজীবীদের নজরে পড়েনি । ভোটের গন্ধনেই , তাই হয়তো কিছু দিনের মধ্যে ছাড়া পেয়ে যাবে শেখ হাফিজুল।